প্রস্তুত জল্লারপাড় আমাহাট্টা লেক, শীঘ্রই দেয়া হবে পানি

304
প্রস্তুত জল্লারপাড় আমাহাট্টা লেক, শীঘ্রই দেয়া হবে পানি

নারায়ণগঞ্জ ফার্স্ট নিউজ:

মেয়র আইভীর নতুন নতুন চমকের মধ্যে এবার প্রস্তুত করা হয়েছে জল্লারপাড়া আমহাট্টা লেক। শীঘ্রই এই লেকে পানি ছাড়া হবে অথবা বৃষ্টি হলে বৃষ্টির পানিতে ভরে যাবে লেকটি। এখন চলছে চারিপাশে বৃক্ষ রোপনের প্রস্তুতি।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের আন্তরিক প্রচেষ্টায় একটি ময়লার বাগার এবং বস্তির স্থানে নির্মিত হয়েছে দৃষ্টিনন্দন এই লেক এবং পার্কে। গতকাল সরেজমিন গিয়ে এমন চিত্রই চোখে পড়েছে। শ্রমিকরা সোন্দর্য্য বর্ধনের বাকী কাজ সম্পন্ন করে চলেছে।

কর্মরত ঠিকাদার জানিয়েছেন আগামী এক মাসের মধ্যে সিটি কর্পোরেশনকে লেকটি বুঝিয়ে দেয়া হবে। রাত দিন কাজ করে বিগত এক বছরে লেকটির কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। কাজ শেষ হলে এই লেকটি হবে শেখ রাসেল পার্কের বর্ধিত অংশ। ফলে ওই এলাকার সাধারন মানুষের মাঝে দেখা দিয়েছে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা, খুবই খুশী তারা।

এ ব্যাপারে জল্লারপাড়া এলাকার বাসিন্দা মনিরুল ইসলাম মোহন বলেন, আমরা গত প্রায় বিশ বছর ধরে অত্র এলাকায় বাস করি। যেখানে লেকটি গড়ে তোলা হয়েছে এটি ছিলো ময়লার একটি ডাম্পিং স্টেশন এবং একটি বস্তি। এখান থেকে সব সময় দূর্গন্ধ বের হতো। দূর্গন্ধে রাস্তা দিয়ে চলাচল করা যেতো না।

কিন্তু নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডাক্তার সেলিনা হায়াৎ আইভীর হাতের ছোঁয়ায় একেবারে পাল্টে গেছে গোটা এলাকার চিত্র। এখন আমরা প্রতিদিন এই লেকের পাড়ে বেড়াতে আসি। এখানে এসে বসলে প্রশান্তিতে মন ভরে যায়।

তিনি আরও বলেন, আমরা দেখেছি কিভাবে রাতদিন কাজ করে মাত্র এক বছরে এই লেকটি খনন এবং নির্মান করা হয়েছে। এটি খনন করতে এখান থেকে সরাতে হয়েছে হাজার হাজার ট্রাক ময়লা ও মাটি। কিন্তু তারা কাজ করেছেন অবিরাম। যার ফলে অল্প সময়েই এটি নির্মান করা সম্ভব হয়েছে। তাই আমরা নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়রকে ধন্যবাদ জানাই। আসলেই এই লেক নির্মানের কারনে বদলে গেছে গোটা এলাকার চেহারা। বুক ভরে নিশ^াস নিতে পারবে মানুষ।